গরমের শুরুতেই যত্ন নিন ত্বকের, কিভাবে হবে মুশকিল আসান – জেনে নিন এখনই

0
349

হিসেব মত সদ্য শুরু হলো গ্রীষ্মের। এদিকে শীত চলে গেছে বহুদিন, তারপরও ত্বকের শুষ্কতা এখনো পিছু ছাড়ছে না। ক্রমশ বাড়তে থাকা রোদের তাপা ত্বকের পুরো দফারফা। রোদের তীব্রতা, ধুলোবালি, ব্রণ এসব থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য ত্বককে দিতে হবে সুরক্ষা। ত্বকের ঔজ্জ্বল্য নষ্ট হওয়ার পিছনে রয়েছে সূর্যের ক্ষতিকর আলট্রা ভায়োলেট রশ্মির প্রভাবও৷ তাই এই গ্রীষ্মে সানস্ক্রিন ছাড়াও আরও কি কি ভাবে যত্নে রাখবেন আপনার ত্বককে, জেনে নিন।

প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের যত্ন

সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করলে কিন্তু রক্ষা পাবে আপনার ত্বক। সারাদিন বাইরে ঘোরাঘুরি করে রাতে ফিরে নজর দিন তার দিকেও৷ সকালের দিকেই একটা টোম্যাটো আর অর্ধেক পাতিলেবুর রস করে দু চামচ জল মিশিয়ে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। বাড়ি ফিরে রাতে সেই বরফ মুখে ঘষে নিন। ত্বক সতেজ থাকার পাশাপাশি কালচে ছোপ দূর হবে। শুধুমাত্র টকদই ও ব্যবসা করতে পারেন।

ট্যান দূর করুন

সারাদিন রোদে ঘুরলে ট্যান পড়বেই। তাই তরমুজের রস এবং লাউ এর রস একসাথে মিশিয়ে টোনার বানিয়ে রাখুন। পোড়া ভাব একদম দূর হয়ে যাবে এবং ত্বক মসৃণ হবে। ট্যান পড়ায় যদি মুখের ত্বক শুষ্ক হয়ে যায় সেক্ষেত্রে ঠান্ডা দুধ বা এক চামচ পাতিলেবুর রসের সাথে সাথে কাঁচা হলুদ বাটা বা খানিকটা চিনি মিশিয়ে ফেসপ্যাক  বানাতে পারেন। মুখে লাগিয়ে কুড়ি মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলবেন৷ সাথে অবশ্যই বেশি এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন এবং অবশ্যই ছাতা ব্যবহার করবেন।

পরিমিত সঠিক খাদ্যাভ্যাস

Vegetable and fruit for summer season ( Source Google)

এই গরমে রোজকার খাওয়ার দিকে বিশেষ নজর দিন। টাটকা শাকসবজি, ফল, ফলের রস এবং অবশ্যই পর্যাপ্ত পরিমাণে জল খান৷ তাপমাত্রা বাড়ার কারণে নানারকম রোগের প্রকোপ ও বাড়ে, সেদিকে অবশ্যই বিশেষ নজর দিন। সফট ড্রিঙ্ক, তেলেভাজা, অতিরিক্ত চিনিযুক্ত পানীয় বা সরবত পুরোপুরি এড়িয়ে চলুন বা বুঝেশুনে খান। চিনির পরিমাণ বা মিষ্টি জাতীয় খাওয়া কমালে ত্বকেও আসবে ঔজ্জ্বল্য। রান্নায় তেল মশলার ব্যবহার কমান। টক আর তেতো জাতীয় খাবার খান বেশি করে। জলের পাশাপাশি খেতে পারেন ডাবের জল বা নারকেলের জল৷

ত্বকে থাকুক ঔজ্জ্বল্য

যাদের তৈলাক্ত ত্বকের সমস্যা থাকে, তাদের ত্বকে তেলতেলে ভাবটা অনেক বেশি দেখা যায়। শসা এবং মুসুর ডাল একসঙ্গে পেষ্ট করে ফেসপ্যাক বানিয়ে নিয়মিত মুখে লাগান। ২০-২৫ মিনিট রেখে ধোয়ার পরেই তেলতেলে ভাবটা অনেকটাই কেটে যাবে। এছাড়াও ডিমের সাদা অংশ, সেদ্ধ ওটস, আপেলের টুকরো ও লেবুর রস থেতো করে প্যাক বানিয়ে লাগাতে পারেন। তেলতেলে ভাবটা চলে যাবে। বরং ত্বকে আসবে ঔজ্জ্বল্য। অনেকের এই সময়ে হিট র‍্যাশ বেরোয়, সেটা এড়াতে টকদই, কাঁচা হলুদ আর নিমপাতা বাটা মিশিয়ে লাগান৷ র‍্যাশ চলে যাওয়ার সাথে সাথে ত্বকে ঔজ্জ্বল্যও আসবে৷

গ্রীষ্মকালীন মেকআপ

এই সময় মেকআপ করার ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখুন৷ প্রথমত, ভারী, ফুল কভারেজ দেওয়া ফাউন্ডেশন লাগালে ত্বকের রোমকূপ গুলি বন্ধ হয়ে যায়। তাই অবশ্যই এটি এড়িয়ে চলুন। বরঙ ব্যবহার করুন সিসি বা বিবি ক্রিম। সানস্ক্রিনের ওপর বুলিতে নিতে পারেন কম্প্যাক্ট পাউডার৷ ত্বক শুষ্ক হয়ে এলে লাগাতে পারেন টিন্টেড ময়েশ্চারাইজার। বরং ঠোঁটে থাক গাঢ় লিপস্টিকের ছোঁয়া এবং চোখে রঙিন মেকআপ। প্রতিদিন রাতে শোয়ার আগে অবশ্যই ক্লেনজার দিয়ে ভালো করে মুখ পরিষ্কার করে নেবেন৷ তারপর টোনার বা গোলাপজল লাগিয়ে ম্যাসাজ করে নিন কোনো হালকা নাইট ক্রিম বা ময়েশ্চারাইজার।

খেয়াল রাখবেন, এইসময় সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মির প্রভাবে ত্বকের অতিরিক্ত নরম জায়গা গুলিতে প্রভাব পড়ে। যেমন ঠোঁট বা চোখের চারপাশ। চড়া রোদে বেরলে তাই অবশ্যই সানগ্লাস ব্যবহার করুন। প্রয়োজনে এসপিএফ যুক্ত লিপবাম লাগান৷ রাতে শোওয়ার সময় আমন্ড অয়েল লাগিয়ে নিন ঠোঁট আর চোখের চারপাশে। এছাড়াও ধুলোবালি আর ঘামের কারণে ত্বকের বেশ ক্ষতি হয় এবং দেখা যায় ব্রণর সমস্যাও৷ তাই বারবার মুখে জলের ঝাপটা দিন। সেটা সম্ভব নাহলে ব্যাগে রাখুন কোনো ভালো কোম্পানির ওয়েট ওয়াইপস। সেটা ব্যবহার করলেও ত্বক থাকবে সতেজ।

আরও পড়ুন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে